উইন্ডোজ বা অফিসের অ্যাকটিভেশন ব্যাকআপ বা রিস্টোর করা

উইন্ডোজ অপারেটিং সিস্টেমে উইন্ডোজ বা অফিসের লাইসেন্স অ্যাকটিভ করা থাকলে পরে উইন্ডোজ বা অফিস ইনস্টল করলে নতুন করে লাইসেন্স অ্যাকটিভ করতে হয়। তবে অ্যাকটিভেশন ব্যাকআপ করে রাখলে পরে অ্যাকটিভেশন রিস্টোর করলেই হবে। এমনই একটি সফটওয়্যার হচ্ছে অ্যাডভান্স টোকেন্স ম্যানেজার।
অ্যাকটিভেশন ব্যাকআপের জন্য সফটওয়্যারটি চালু করে Backup Activation বাটনে ক্লিক করুন। তাহলে Windows Activation Backup ফোল্ডারে অ্যাকটিভেশন সেভ হবে। একইভাবে নিচে Office Activation Backup-এ ক্লিক করে Backup Activation বাটনে ক্লিক করলে অফিসের অ্যাকটিভেশন ব্যাকআপ সেভ হবে।
অ্যাকটিভেশন রিস্টোর করতে Restore Activation বাটনে ক্লিক করলে অ্যাকটিভেশন রিস্টোর হবে। একইভাবে অফিসের ব্যাকআপ রিস্টোর করা যাবে।
চাইলে অ্যাকটিভেশন ডিলিট করতে পারেন। পোর্টেবল এবং ফ্রি এই সফটওয়্যারটি http://goo.gl/eXCCN থেকে ডাউনলোড করা যাবে।

রিমোট ইউটিলিটিস দ্বারা কম্পিউটার নিয়ন্ত্রণ
কম্পিউটার রিমোট কন্ট্রোল করার জন্য বিভিন্ন সফটওয়্যার রয়েছে। এর মধ্যে রয়েছে ভিএনসি, টিমভিউয়ার, রিমোট ডেক্সটপ কানেকশন, লগমিইন ইত্যাদি। তবে এমনই আরেকটি সফটওয়্যার হচ্ছে রিমোট ইউটিলিটিস। ফ্রিওয়্যার সফটওয়্যারটি দ্বারা রিমোট কম্পিউটার দেখা, নিয়ন্ত্রণ করা, ফাইল ট্রান্সফার করা, চ্যাটিং করা, রিমোট কম্পিউটারের ডেক্সটপ রেকর্ড করা, রিমোট ইনস্টল করা, রেজিস্ট্রি এডিট, পাওয়ার কন্ট্রোল ইত্যাদি রয়েছে।
সফটওয়্যারটির ফ্রি সংস্করণ এবং এন্টারপ্রাইজ সংস্করণ পাওয়া যাবে http://www.remoteutilities.com থেকে। সফটওয়্যারটি দুটি অংশ, একটি ভিউয়ার আরেকটি সার্ভার। যে কম্পিউটার নিয়ন্ত্রণ করতে হবে সেই কম্পিউটার সার্ভার সংস্করণ এবং যে কম্পিউটার থেকে দেখবেন, সেই কম্পিউটারে ভিউয়ার সংস্করণ ইনস্টল করতে হবে।

 

Advertisements

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / Change )

Connecting to %s