পড়াশোনায় অনলাইন ভিডিও

পড়ালেখা এখন আর শুধু শ্রেণীকক্ষ বা পাঠ্যপুস্তকের বিষয় নয়। পড়ালেখায় এখন লেগেছেইন্টারনেট এবং ডিজিটাল প্রযুক্তির ছোঁয়া।প্রচলিত শ্রেণীকক্ষের জায়গায় আসছে ডিজিটাল ক্লাসরুম বা ভিডিও সম্মেলন (কনফারেন্সিং), পাঠ্যপুস্তকের জায়গায় আসছে ডিজিটাল বই বা পিডিএফ এবং ডিজিটাল ও মাল্টিমিডিয়া উপস্থাপনা।
বাইরের বিশ্ব ইতিমধ্যেই এসবে বেশ এগিয়ে গেছে। বিখ্যাত খান একাডেমির কথা তো সবারই জানা। শিক্ষার বিভিন্ন বিষয়ে হাজার হাজার ভিডিও উপস্থাপনা আছে খান একাডেমির ডিজিটাল সংগ্রহশালায়। এ ছাড়া অনেকে ব্যক্তিগত ও প্রাতিষ্ঠানিক পর্যায়ে শিক্ষার নানান উপকরণ ইন্টারনেট ও ডিজিটাল প্রযুক্তির মাধ্যমে ছড়িয়ে দিচ্ছেন। শুরুতেই বলে রাখি, এখন কিন্তু একমুখীর পাশাপাশি দ্বিমুখী শিক্ষা কার্যক্রমও শুরু হয়েছে। অর্থাৎ শুধু ডিজিটাল নোট বা বই সংগ্রহই করবে না বা ভিডিও দেখবে না, সেগুলো দেখে বা পড়ে অনলাইনে পরীক্ষা দেওয়া ও যাচাইয়ের ব্যবস্থাও থাকছে।
বাংলাতেও তৈরি হচ্ছে শিক্ষার এ রকম নানান উপকরণ। নিজস্ব ওয়েবসাইট খুলে, ব্লগের মাধ্যমে বা ইউটিউব ব্যবহার করে মাতৃভাষায় শিক্ষার নানান উপকরণ ছড়িয়ে দিচ্ছেন সবাই। এর মধ্যে স্কুলপড়ুয়াদের জন্য উপযোগী উপকরণ থেকে শুরু করে উচ্চশিক্ষার বিভিন্ন পাঠক্রমও আছে। খান একাডেমির ভিডিওগুলোর বাংলায় রূপান্তরের কাজ অনেকটাই শেষের দিকে (www.khanacademybangla.com) । অনেক শিক্ষকও আজকাল ক্লাসে দিচ্ছেন অনলাইন নোট বা বাড়ির কাজ। সব মিলিয়ে বাংলা ভাষায় ও বাংলাদেশে ডিজিটাল শিক্ষার শুরুটা মন্দ নয়।
সত্যি কথা বলতে কি, বাংলা ভাষায় ডিজিটাল শিক্ষার চর্চা কিছুদিন ধরে ব্যাপক গতি লাভ করেছে। প্রচুর পরিমাণ উপকরণ যুক্ত হয়েছে। এর মধ্যে সবচেয়ে উল্লেখযোগ্য হলো শিক্ষক ডট (www.shikkhok.com) ও যন্ত্রগণক (www.jontrogonok.com)। যন্ত্রগণক ওয়েবসাইটটি কম্পিউটার শিক্ষা, বিশেষত কম্পিউটার নিরাপত্তা বিষয়ে শেখায়। অন্যদিকে শিক্ষক ডট কম এখন পর্যন্ত বাংলা ভাষায় সবচেয়ে বেশি দ্বিমুখী কোর্সের সংগ্রহশালা। গত মাসে চালু হওয়া এই ওয়েবসাইটে ইতিমধ্যেই যুক্ত হয়েছে কম্পিউটার প্রোগ্রামিং, জ্যোতির্বিজ্ঞান, কেমিকৌশল, জিওগ্রাফিক ইনফরমেশন সিস্টেম (জিআইএস), ক্যালকুলাস, বায়োইনফরমেটিকসের ওপর কোর্স। শিগগিরই আরও কোর্স চালু হতে যাচ্ছে। শিক্ষকের কোর্সগুলো বিভিন্ন ভাগে ভাগ করা হয়েছে। সবই ভিডিও কোর্স। নির্দিষ্ট বিষয়ের ওপর বিশেষজ্ঞরা ভিডিও বক্তৃতা (লেকচার) দিয়েছেন। প্রতিটি ভিডিও শেষে মূল্যায়নের জন্য আছে কুইজ। সে তুলনায় যন্ত্রগণক কিন্তু বেশ আগে থেকেই চালু আছে। এটি শুরু হয়েছে চলতি বছরের জুলাই মাসে। এ দুটো ওয়েবসাইটের নির্মাতা ইউনিভার্সিটি অব আলাবামা অ্যাট বার্মিংহামের সহকারী অধ্যাপক এবং বাংলা উইকিপিডিয়ার প্রশাসক রাগিব হাসান। তিনি জানান, বর্তমানে যন্ত্রগণকে ১২০০ জন নিবন্ধিত শিক্ষার্থী রয়েছেন। ৫০০ থেকে ৬০০ জন প্রতিটি কুইজ পরীক্ষা দিচ্ছেন। রাগিব বললেন, ‘আমি কখনো এত বড় ক্লাসে শিক্ষকতা করিনি।’
এ ছাড়া ইউটিউবভিত্তিক শিক্ষা কার্যক্রমের মধ্যে রয়েছে ইউনিভার্সিটি অব সাউথ ক্যারোলাইনার পিএইচডি গবেষক এবং বাংলাদেশ গণিত অলিম্পিয়াডের একাডেমিক কাউন্সিলর চমক হাসানের ‘গণিতের রঙ্গে’। এখানে চমক গণিতকে একটু ভিন্ন ঢঙে উপস্থাপন করার সুন্দর চেষ্টা চালিয়েছেন। এখন পর্যন্ত ১০টি পর্ব প্রকাশ করা হয়েছে। ভিডিওগুলোর দর্শকসংখ্যা লাখ পেরিয়ে গেছে। চমক হাসানের এই চ্যানেলটির ঠিকানা http://www.youtube.com/user/chamokhasan?feature=results^main।
এ ছাড়া তথ্যপ্রযুক্তি নিয়ে বেশ কিছু ভিডিও টিউটোরিয়াল রয়েছে বাংলা ভাষার এবং আমাদের দেশের মানুষের উদ্যোগে। যেমন তামিম শাহরিয়ার উদ্যোগ নিয়েছেন ছোটদের জন্য অনলাইন প্রোগ্রামিং শিক্ষার (www.facebook.com/computerprogrammingbook)। সিলেট আইটি একাডেমি তৈরি করেছে ওয়েবপেজ তৈরির নানান ভিডিও প্রশিক্ষণ কোর্স। এটা পরিচালনা করছেন বেসিস ফ্রিল্যান্সার অব দ্য ইয়ার ২০১১ পুরস্কার বিজয়ী মো. জাকারিয়া চৌধুরী (www.sylhetitacademy.com) এখানে পাবেন নয়টি পিএইচপি ভিডিও টিউটোরিয়াল কোর্স।
বাইরের বিশ্ববিদ্যালয় অনলাইনভিত্তিক শিক্ষা কার্যক্রম শুরু করলেও আমাদের দেশে এই যাত্রা মাত্র শুরু হলো, তা-ও ব্যক্তিগত পর্যায়ে। আমাদের বিশ্ববিদ্যালয়গুলো অনলাইনভিত্তিক কোর্স চালু করলে প্রাতিষ্ঠানিকভাবেই অনেক শিক্ষার্থী উচ্চশিক্ষা নিতে পারবেন।পাশাপাশি সরকার আমাদের নিম্নমাধ্যমিক, মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিক পর্যায়েও তথ্যপ্রযুক্তির ব্যবহার শুরু করতে পারে।এর মাধ্যমে আমাদের দেশের শিক্ষার মান অনেক বেড়ে যাবে।

প্রযুক্তির মাধ্যমে নানা ধরনের কাজের চাহিদা যেমন বেড়েছে, তেমনি বেড়েছে কাজের সুযোগ। এর বড় একটি উদাহরণ হচ্ছে ফ্রিল্যান্সিং আউটসোর্সিং। বাংলাদেশের তরুণেরা বর্তমানে ফ্রিল্যান্সিংয়ে নিজেদের অবস্থান শক্ত করেছেন। নিজেদের দক্ষতার মাধ্যমে এখন দেশের মুক্ত পেশাজীবীরা (ফ্রিল্যান্সার) জায়গা করে নিয়েছেন ফ্রিল্যান্সিং কাজের অন্যতম সেরা ওয়েবসাইট ওডেস্কের সেরা ফ্রিল্যান্সারদের তালিকায়। নানা ধরনের কাজ বর্তমানে ফ্রিল্যান্সিংয়ের মাধ্যমে হচ্ছে, যার মধ্যে প্রযুক্তির বিভিন্ন কাজ অন্যতম। এ খাতে বড় একটি কাজ হচ্ছে গ্রাহকসেবা ও ব্যবস্থাপনা।

কাজটা কী ও কেমন?

গ্রাহকদের সেবা অনেক সময় বড় প্রতিষ্ঠানগুলো নিজেরা সরাসরি দেয় না।এ কাজগুলো আউটসোর্সিংয়ের মাধ্যমে কাউকে দিয়ে করানো হয়। গ্রাহকসেবা ও কাজের মধ্যে রয়েছে ই-কমার্স সাইটের সেবা, নেটওয়ার্কিং, কারিগরি সেবা, চ্যাট সেবা, ফোন সেবা, বিভিন্ন প্রকার ওয়েবসাইট তৈরির কন্টেন্ট ম্যানেজমেন্ট সিস্টেম (সিএমএস) সম্পর্কে ধারণা ইত্যাদি। এ ছাড়া এর মধ্যে এমন অনেক কাজও রয়েছে, যেগুলো বিভিন্ন সময় গ্রাহকসেবার ক্ষেত্রে কাজে লাগে। এমন একটি কাজ হচ্ছে কম্পিউটার সম্পর্কে জ্ঞান; যার মাধ্যমে ফাইল পুনরুদ্ধার করা, অপারেটিং সিস্টেম ইনস্টল পদ্ধতি কিংবা কোনো সমস্যা হলে ঠিক করা ইত্যাদি। গ্রাহকসেবা নিয়ে ফেসবুকে রয়েছে একটি গ্রুপ (www.facebook.com/ groups/odeskanswer)। এখানে গ্রাহকসেবা সম্পর্কে আগ্রহী যে কেউ যোগ দিয়ে আলোচনা করা কিংবা সমস্যার সমাধান পেতে পারেন। এ ছাড়া গ্রাহকসেবা-সম্পর্কিত নানা তথ্য পাওয়া যাবে http://www.facebook.com/OdeskAnswer ঠিকানায়।

ই-কমার্সের গ্রাহকসেবা

ই-কমার্স হচ্ছে সারা বিশ্বে বর্তমানে সহজে কেনাকাটার মাধ্যম। অর্থাৎ, যেসব সাইট থেকে কেনাকাটা করা যায়, তাও আবার ঘরে বসেই, সেসব সাইটই ই-কমার্স সাইট। ই-কমার্স সাইটের নানা ধরনের গ্রাহকসেবার কাজ রয়েছে। ই-কমার্সে সাধারণত দুটি কাজ হয়। এর মধ্যে একটি হচ্ছে বিজনেস টু বিজনেস (বিটুবি) এবং অন্যটি হচ্ছে বিজনেস টু কমার্স (বিটুসি)।
‘ই-কমার্স সাইটের গ্রাহকসেবা দেওয়ার ক্ষেত্রে অন্যতম জরুরি একটি বিষয় হচ্ছে, যেসব সিএমএস দিয়ে সাধারণত ই-কমার্স সাইট তৈরি হয়, সে সম্পর্কে জানা’—বললেন সম্প্রতি ওডেস্কের সেরা ফ্রিল্যান্সারদের তালিকার মধ্যে গ্রাহকসেবা বিভাগের শীর্ষে থাকা এক্সপ্লোর অ্যান্ড গেট অলের প্রধান নির্বাহী শাফকাত শিশির।
তিনি জানান, সাধারণত ওয়ার্ডপ্রেস, ম্যাগেন্টো, বিগ-কমার্স, জুমলা, ওপেন কার্ট ইত্যাদি সিএমএস সম্পর্কে জানতে হবে। তা হলেই ই-কমার্সের গ্রাহকসেবার কাজগুলো করা যাবে।

কারিগরি সেবা

গ্রাহকসেবার মধ্যে অন্যতম একটি সেবা হচ্ছে কারিগরি সেবা। এর মধ্যে রয়েছে উইন্ডোজ, ম্যাক ইত্যাদি অপারেটিং সিস্টেম সম্পর্কে জানা এবং অপারেটিং বিষয়গুলোর নানা সমাধান দেওয়া। এ ছাড়া রয়েছে এসব অপারেটিং সিস্টেমের মাধ্যমে চ্যাট সেবা, আইপি প্রক্সি-সম্পর্কিত কাজ, ই-মেইলের টিকিট এবং টোকেন সম্পর্কে জানা। শুধু নির্দিষ্টভাবে কারিগরি সেবার কাজও সহজে পাওয়া যায়।

চ্যাট সেবা

চ্যাট সেবা বর্তমানে গ্রাহকসেবার মধ্যে জনপ্রিয় আরেকটি সেবা। মূলত ই-কমার্স সাইটের জন্য এ সেবাটি খুবই গুরুত্বপূর্ণ। বর্তমানে অনেক ওয়েবসাইটে সার্বক্ষণিক চ্যাট-সুবিধা রাখা হয়, যাতে যে কেউ কিছু জানতে চাইলে তাৎক্ষণিক জানতে পারেন। বিভিন্ন ধরনের চ্যাট সাপোর্ট সফটওয়্যার রয়েছে। এর মধ্যে রয়েছে কম ১০০, জোপিম, লাইভ পারসন ইত্যাদি। এর মধ্যে ই-কমার্স সাইটের জন্য লাইভ পারসন এবং কম ১০০ অন্যতম। কাজটি করতে হলে ওই ই-কমার্স সাইটের সব ধরনের তথ্য জানা লাগে, যা সাইট কর্তৃপক্ষ দিয়ে দেয়। আর গ্রাহকসেবার ক্ষেত্রে কাজ হচ্ছে আগ্রহী গ্রাহকদের নানা ধরনের তথ্য দেওয়া, যা ওই গ্রাহক জানতে চায়। ফ্রিল্যান্সিং সাইটগুলোতে সেবাটিরও নানা ধরনের কাজ পাওয়া যায়।

ফোন সেবা

ফোন সেবা অনেকটা কল সেন্টারের মতো। ভালোভাবে ইংরেজি বোঝা ও বলার দক্ষতা থাকলেও শুধু ফোন সেবা দিয়ে ভালো কিছু করা যায়—বললেন শাফকাত। এ বিষয়ে তিনি বলেন, ভালোভাবে এক-দুই বছর চর্চার মাধ্যমেই ফোন সেবার কাজটি করা সম্ভব এবং এতে আয়ও ভালো। কাজটি বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের হয়ে করা যায়। এই কাজ করতে চাইলে চ্যাট ও কথা বলার জনপ্রিয় সফটওয়্যার স্কাইপি, এক্স-লাইট ইত্যাদি সম্পর্কে ধারণা থাকতে হবে। কাজটি শুধু দেশের বাইরে নয়, দেশের মধ্যেও করা যায়। ইচ্ছা এবং কাজ করার আগ্রহ থাকলে ন্যূনতম প্রশিক্ষণেই কাজটি করা যায়, বললেন দেশে ফোন সেবা দেওয়া প্রতিষ্ঠান এনপি কমিউনিকেশনের বিপণন পরিচালক বিপ্লব ঘোষ। তিনি বলেন, দেশের বাইরের পাশাপাশি অভ্যন্তরীণ ফোন সেবাও বর্তমানে বেশ জনপ্রিয়।

উইন্ডোজ শেয়ার পয়েন্ট

অনলাইনে নানা সেবার মধ্যে অন্যতম একটি গ্রাহকসেবা হচ্ছে উইন্ডোজ শেয়ার পয়েন্ট। এই কাজ বিভিন্ন ক্ষেত্রেই প্রয়োজন হতে পারে। অনেক সময় অপারেটিং সিস্টেম ক্র্যাশ কিংবা সমস্যায় পড়লে হার্ডডিস্ক থেকে তথ্য পুনরুদ্ধার খুব জরুরি হয়ে পড়ে। এ ছাড়া ট্রাবল শুটের প্রয়োজন হয় নানা সময়। এ ক্ষেত্রে এ ধরনের কাজের মাধ্যমেও ভালো করা সম্ভব।

করতে পারেন আপনিও

নানা ধরনের আউটসোর্সিং কাজের মধ্যে গ্রাহকসেবার কাজটিও আপনি করতে পারেন। এ কাজের জন্য প্রয়োজন আগ্রহ এবং নির্দিষ্ট বিষয়ে দক্ষতা। কাজগুলো জনপ্রিয় বিভিন্ন ফ্রিল্যান্সিং সাইটে পাওয়া যায়। নির্দিষ্ট যেকোনো একটি বিষয় নিয়েও কাজ করা যাবে।

Advertisements

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / Change )

Connecting to %s