স্মার্ট ফোনের কিছু সুবিধা

অপেরা মিনি

তরুণ প্রজন্মের কাছে স্মার্টফোন মানেই ইন্টারনেট ব্রাউজিং ডিভাইস। স্মার্টফোনে ‘ডিফল্ট’ ব্রাউজার দেওয়া থাকলেও তাতে থাকে নানা সীমাবদ্ধতা। মোবাইলে কম্পিউটারের মতো ইন্টারনেট ব্রাউজিং ‘এক্সপেরিয়েন্স’ দিতে পারে একমাত্র অপেরা মিনি। এইচটিএমএল সমর্থক এ ব্রাউজারের ডাউনলোড ম্যানেজার দিয়ে বিভিন্ন ফাইলও সহজে ডাউনলোড করা যায়। ওয়েবপেইজ লোড করার সময় এটি ‘কমপ্রেস’ প্রযুক্তি ব্যবহার করে। এতে বিটম্যাপ সমর্থন থাকায় বাংলা ভাষার ওয়েবসাইটও দেখা সম্ভব। অ্যাপ্লিকেশনটি ডাউনলোড করা যাবে http://www.operamini.com থেকে।

গুগল ল্যাটিটিউড

সার্চ ইঞ্জিন জায়ান্ট গুগলের কম্পিউটার সফটওয়্যার ‘গুগল ম্যাপস’-এর বেশির ভাগ সুবিধাই রয়েছে এ অ্যাপ্লিকেশনে। এর মাধ্যমে বিশ্বের যেকোনো প্রান্ত থেকে আপনার তাৎক্ষণিক অবস্থান জেনে নিতে পারবেন আরেকজন। এ জন্য তাকে গুগল ল্যাটিটিউড অ্যাপ্লিকেশনে আপনার বন্ধু হিসেবে শনাক্ত করে দিতে হবে। এ অ্যাপ্লিকেশন ব্যবহার করে সেই বন্ধুকে এসএমএস ও এমএমএস পাঠানোর সুযোগ রয়েছে। এর মাধ্যমে বন্ধুর সঙ্গে চ্যাটও করা যাবে। অ্যাপ্লিকেশনটি http://www.google.com/latitude থেকে ডাউনলোড করা যাবে।

স্কাইপি

ইন্টারনেটের মাধ্যমে বিনা মূল্যে কথা বলার জন্য ‘স্কাইপি’ বিশ্বব্যাপী জনপ্রিয় একটি অ্যাপ্লিকেশন। শুধু কম্পিউটার নয়, এটি মোবাইল ফোন থেকেও ব্যবহার করা যায়। কম্পিউটার সংস্করণের প্রায় সব সুবিধাই এতে রয়েছে। টেক্সট চ্যাটিং, ফাইল আদান-প্রদান এবং অন্যান্য সাইটের লিংকও এতে শেয়ার করা যায়। অ্যাপ্লিকেশনটি http://m.skype.com থেকে ডাউনলোড করা যাবে। তবে অ্যাপ্লিকেশনটি অবশ্যই মোবাইল ফোনের বিল্ট-ইন ব্রাউজার দিয়ে ডাউনলোড করতে হবে। অপেরা মিনি বা ডাউনলোড করে নেওয়া কোনো ব্রাউজার দিয়ে অ্যাপ্লিকেশনটি ডাউনলোড করা যাবে না।

ইউসি ব্রাউজার

মোবাইল ফোনে ডাউনলোডের জন্য আদর্শ ব্রাউজার ‘ইউসি’। এতে একসঙ্গে একাধিক ট্যাবে ব্রাউজিং, ওয়েবসাইটের কনটেন্ট কপি-পেস্ট, বুকমার্ক সিনক্রোনাইজিং, ফ্ল্যাশ সমর্থন এবং শর্টকাট ব্যবহারের সুযোগ রয়েছে। থিম পরিবর্তন করে এর ‘আউটলুক’ও নিজের পছন্দমতো করে নিতে পারেন। http://www.ucweb.com/English থেকে ব্রাউজারটি ডাউনলোড করা যাবে।

স্কাইফায়ার

ইন্টারনেটের ধীরগতির কারণে আমাদের দেশে মোবাইলে ভিডিও দেখা দুষ্কর। তবে স্কাইফায়ার সফটওয়্যারটি ইনস্টল করে পছন্দমতো রেজ্যুলেশন নির্বাচন করে ভিডিও দেখা যায়। এ সফটওয়্যারের মাধ্যমে ফেইসবুকের মতো সামাজিক যোগাযোগ সাইটেও ভিডিও শেয়ার করা যায়। অ্যানড্রয়েড, উইন্ডোজ ও সিমবিয়ান অপারেটিং সিস্টেমের জন্য এর আলাদা সংস্করণ রয়েছে। http://www.skyfire.com থেকে অ্যাপ্লিকেশনটি ডাউনলোড করা যাবে।

এক্সপ্লোর

মোবাইল ফোনে ফাইল দেখা, সম্পাদনা করা এবং জিপ-আনজিপ করার জন্য কোনো অপারেটিং সিস্টেমেই ডিফল্ট অ্যাপ্লিকেশন নেই। এ ক্ষেত্রে ‘এক্সপ্লোর’ যথেষ্ট কার্যকর অ্যাপ্লিকেশন। এর মাধ্যমে মোবাইল ফোনে ফোল্ডার-ফাইল, টেক্সট, ছবি ও ফাইল ডিটেইলস দেখা, ফাইল ডিলিট ও রিনেম করা, ফোল্ডার তৈরি করা, ফাইল কপি ও মুভ করা, ব্লুটুথ দিয়ে ফাইল অন্য মোবাইলে পাঠানো, জিপ ও রার ফাইল আর্কাইভ থেকে এঙ্ট্রাক্ট করা, মাইক্রোসফট অফিসের ফাইল দেখাসহ সব ফাইল ব্যবস্থাপনার কাজ করা যাবে। http://bit.ly/x-ploresoft থেকে অ্যাপ্লিকেশনটি ডাউনলোড করা যাবে। ফাইলটি কম্পিউটারের মাধ্যমে ডাউনলোড করে আনজিপ করতে হবে। এরপর .sis ফাইলটি মোবাইলে ইনস্টল এবং কিজেন জেনারেটরের মাধ্যমে মোবাইল আইএমইআই দিয়ে সিরিয়াল নম্বর বের করে রেজিস্ট্রেশন করতে হবে।

ই-বাড্ডি

মোবাইল ফোনে চ্যাট করার জন্য জনপ্রিয় সফটওয়্যার ই-বাড্ডি। এতে এমএসএন, ইয়াহু, এইম, আইসিকিউ, গুগল টক ও ফেইসবুক বন্ধুদের সঙ্গে চ্যাট করার সুযোগ রয়েছে। হালকা সফটওয়্যার হওয়ায় এতে তথ্য আদান-প্রদানে সময়ও অনেক কম লাগে। তাই ইন্টারনেটের খরচও পড়ে কম। http://www.ebuddy.com থেকে সফটওয়্যারটি ডাউনলোড করা যাবে।

Advertisements

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / Change )

Connecting to %s